একটি জুস মেশিন ও তার আত্ম-কাহিনী

প্রচন্ড গরম চারদিকে । ক্লাস করে বাসায় ফিরছ তুমি । মনে মনে ভাবছ বাড়ি ফিরে একগ্লাস ঠান্ডা শরবত হলে খারাপ হয় না । তুমি আবার বেশ স্বাস্থ্য সচেতন । বাজারের যেনতেন জিনিস তুমি খাওনা । স্বাস্থ্য ভাল রাখার জন্যে তোমার প্রয়োজন ফলের শরবত । তাই তুমি আসার পথে বাজার থেকে কিনে নিলে ঢাউস একটা তরমুজ ! তাড়াতাড়ি বাসায় ফিরে তোমার বাসার শো-কেসে সাজিয়ে রাখা জুস মেশিনটা বের করলে,আর তরমুজটা কেটে আস্ত ভরে দিলে ওই মেশিনটার ভেতর ! ব্লাইন্ড করার সুইচটা অন করে দিলে সাথে সাথে । কিন্তু ব্লাইন্ড হচ্ছে নাহ অনেকক্ষন চেষ্টার পর চালু হল মেশিনটা । ব্লাইন্ড করার শেষ হওয়ার পর তোমার জন্যে প্রস্তুত লাল টকটকে তরমুজের জুস !!!

এতক্ষণ জুস বানানোর কথা শুনে তোমারও নিশ্চয় জুস খাওয়ার তেষ্টা পেয়ে গেছে ? হা,আমারও জুস খেতে বড্ড ইচ্ছে করছে । কিন্তু জুস খেতে যাওয়ার আগে তোমাকে কিছু কথা কানে কানে বলে যায়।
এতক্ষণ যে জুস মেশিনের কথা আমি বললাম প্রোগ্রামিং-এ এই মেশিন গাল ভরা নামটা কি জানো?


“কম্পাইলার”!!

সত্যই “কম্পাইলার”!! (এই নামের জন্যে আমি দায়ী নয়…:P) 

এ কটমটে নামটাই কিনা আমাদের প্রোগ্রামিং জীবনের শুরুতেই এটা কাজ করতে চাই নাহ এটা সমস্যা সেটা সমস্যা খালি সমস্যাই লেগে থাকে । আর আমাদের প্রোগ্রামিং – এর জুসের যে আনন্দ সেটা পেতে দেয় না !!!

এইবার আর একটু সবুর করোঁ ,জুস আমরা এখনই খেতে যাব । যাওয়ার আগে ওই জুসটা কিভাবে বানাবো বা মেশিনটা কিভাকে কাজ করে তা একটু জেনে নি , ঠিক আছে ?
হা , এই মেশিন থেকে জুস (মানে প্রোগামের আউটপুট) পেতে হলে এতে আমাদের  আগে দিতে হবে  একটা তরমুজ ( মানে-কোড )। কিন্তু আগে দেখে নিতে হবে তরমুজটা পচা নাহ কি ভাল (মানে-কোডে ভুল/বাগ) আছে কিনা ! সেটা দেখবে কি করে কেন 
ব্লাইন্ড করার সুইচটা অন করো ( রান বাটন প্রেস করো ) । এখন যদি কোন কিছু নাহ হয় তবে বুঝে নাও তোমার ব্লাইন্ড মেশিন নষ্ট । আসলে ব্লাইন্ডিং মেশিন নষ্ট নাহ তোমার ব্লাইন্ডিং মেশিনটা একটু অন্য রকম পচা তরমুজ পাইলেই সে চালু হই নাহ । যখন চালু হবে নাহ বুঝে নিবে তোমার তরমুজ ঠিক নাই আর তরমুজ মানে কি জানি কোড । তাহলে অবশ্যই তোমার কোডে ভুল আছে  । আর কোডে ভুল থাকলে ব্লাইন্ডিং মেশিন  ( কম্পাইলার ) কাজ করবে নাহ ।
যখনই তুমি ভাল একটা তরমুজ  ব্লাইন্ডিং মেশিনের মধ্যে দিবে মানে বাগবিহীন কোড যখন রান করতে সক্ষম হবে তখনই তুমি পেয়ে যাবে সুস্বাদু জুস ( আউট পুট ) !!!
অনেকের মনে হয় এতক্ষণে প্রশ্ন জেগেছে , আচ্ছা এতক্ষণ যে মেশিনটা ( কম্পাইলার ) নিয়ে কথা বললাম সেটাই বা তৈরি হয় কিভাবে ? আমরা এই প্রশ্নটারো উত্তর জানবে,তবে প্রোগামিং-এ আমরা আর একটু বড় হলে , ঠিক আছে ? …:)
আশা করি আমার এই লিখাটা যারা অন্তত প্রোগ্রামিং ভালবাসে কিংবা প্রোগ্রামার হওয়ার স্বপ্ন দেখে,তাদের স্বপ্নটাকে আরো খানিকটা রং দিতে পারবে। যারা একেবারে নতুন তাদের জন্য এই লেখা আমার । আমি মূলত সাধারণভাবে 
কম্পাইলার কি করে সেটা জানানো চেষ্টা করেছি । হ্যাপি প্রোগ্রামিং…:)

কোডব্লক কম্পাইলারের ডাউনলোড লিংকঃ- http://www.codeblocks.org/downloads/26 (96.6 MB)

Author: Osman
About the Guest Author Chowdhury Osman: More Information click here

Posted by Shipu Ahamed

Leave a Reply